চর্যাপূর্ব সাহিত্য ও চর্যাপদ – পর্ব ২

টার্গেট বাংলা গ্রুপে আয়োজিত SSC CLASS এ সদস্যদের দ্বারা আলোচিত নানা বিষয় থেকে উঠে আসা প্রশ্নোত্তর নিয়ে আমাদের আজকের প্রতিবেদন। আমাদের আজকের আলোচ্য চর্যাপূর্ব সাহিত্য ও চর্যাপদ । আজ আলোচনার দ্বিতীয় পর্ব।

প্রশ্নোত্তর –

৭৬] চর্যাপদের ‘চর্য্যাশ্চর্য্যবিনিশ্চয়’ নামটি কার দেওয়া ?

উঃ হরপ্রসাদ শাস্ত্রী

৭৭] চর্যাপদের ফটো মূদ্রণ সংস্করণ কে প্রকাশ করেন ?

উঃ নীলরতন সেন

৭৮] চর্যার আমলে প্রচলিত খেলাটির নাম কী?

উঃ দাবা

৭৯] চর্যাপদকে ‘চাচাগান’ কে বলেছেন ?

উঃ শশিভূষণ দাশগুপ্ত

৮০] সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় তাঁর কোন গ্রন্থে প্রমাণ করেছেন যে চর্যাপদের ভাষা বাংলা ভাষারই পূর্বসূরি ?

উঃ The Origin And Development Of Bengali Language

৮১] চর্যাভাষা হিন্দি নয় কে প্রমাণ করেন ?

উঃ সুকুমার  সেন

৮২] চর্যাপদে কার পদ সংখ্যা বেশী ?

উঃ কাহ্ন পা

৮৩] সদুক্তিকর্নামৃত কে সংকলন করেছিলেন ?

উঃ শ্রীধর দাস

৮৪] চর্যাপদের ধর্মমত কি ?

উঃ বৌদ্ধ সহজিয়া

৮৫] বৌদ্ধতান্ত্রিক সাহিত্যিকদের প্রতি গবেষকদের দৃষ্টি আকর্ষণ কে প্রথম করেন ? তাঁর রচনার নাম ও প্রকাশকাল কত ?

উঃ রাজা রাজেন্দ্র লাল মিত্র। The Sanskrit Buddhist literature in Nepal (1882)

৮৬] কোন্ পদ কর্তার পদে সমাজ জীবনের কথা সবচেয়ে বেশি ফুটে উঠেছে ?

উঃ কাহ্ন পা

৮৭] ড: শহীদুল্লাহ কাকে চর্যার আদি পদকর্তা বলেছেন ?

উঃ সরহ পা

৮৮] বিষম ধ্রুবা কি ?

উঃ চর্যায় ধ্রুব পদটি যতক্ষণ সমবেত কন্ঠে গাওয়া হত তখন তাকে বিষম ধ্রুবা বলা হত।

৮৯] জয়কান্ত মিশ্র কোন গ্রন্থে চর্যার মধ্যে মৈথিলী ভাষার দাবি করেছেন ?

উঃ The History & Moithili Literature

৯০] চর্যাপদের তিব্বতী অনুবাদ কে করেন ?

উঃ মুনিদও

৯১] চর্যায় কোন কোন নদীর নাম রয়েছে ?

উঃ গঙ্গা আর যমুনা

৯২] রাজতরঙ্গিণী কার লেখা ?

উঃ  কহ্লন

৯৩] চর্যার মূল ধর্মতত্ত্বটি কি ?

উঃ মহাসুখ নির্বাণ লাভ

৯৪] চর্যাপদের কবি ও তাঁদের পদের সংখ্যাগুলি নিম্নরূপ –

উঃ

লুইপা ১, ২৯ নং পদ

কুক্কুরী পা ২, ২০, ৪৮ নং পদ

বিরু পা ৩ নং পদ

গুন্ডরী পা ৪ নং পদ

চাটিল্লা পা ৫ নং পদ

ভুসুক পা ৬, ২১, ২৩, ২৭, ৩০, ৪১, ৪৩, ৪৯ নং পদ

কাহ্ন পা ৭, ৯, ১০, ১১, ১২, ১৩, ১৮, ১৯, ২৪, ৩৬, ৪০, ৪২, ৪৫ নং পদ

কম্বালম্বর পা ৮ নং পদ

ডোম্বী পা ১৪ নং পদ

শান্তি পা ১৫, ২৬ নং পদ

মহীধর পা ১৬

বীণা পা ১৭

সরহ পা ২২, ৩২, ৩৮, ৩৯ নং পদ

ঢেগুন পা ৩৩ নং পদ
আর্যদেব পা ৩১ নং পদ

দারিক পা ৩৪ নং পদ

ভাদে পা ৩৫ নং পদ

তাড়ক পা ৩৭ নং পদ

কঙ্কণ পা ৪৪ নং পদ

জয়নন্দী পা ৪৬ নং পদ

ধর্ম পা ৪৭ নং পদ

তন্ত্রী পা ২৫ নং পদ

৯৫] দানসাগর, অদ্ভুতসাগর কার লেখা ?

উঃ বল্লাল সেন

৯৬] চর্যাপদের রাগের সংখ্যা কত ?

উঃ ১৭ টি

‍৯৭] চর্যাপদ নিয়ে গবেষণা করেছেনএমন কয় জন বিদেশী পণ্ডিতের নাম বলুন ?

উঃ Dr. Arnold Bake, Dr. G. Tucci, Per Kvaerne

৯৮] পদকর্তার নাম কুক্কুরী পা কেন ?

উঃ লোক প্রচলিত আছে পদকর্তার সহচারী যোগিনী পুর্বজন্মে লুম্বিনী বনে কুক্কুরী থাকায় তাঁর নাম কুক্কুরী হয়েছে।

৯৯] চর্যাপদের কত নং পদে ‘বঙ্গ’ শব্দের উল্লেখ আছে ?

উঃ ৩৯ নং পদে

১০০] ঢেন্ঢন পাদের প্রকৃত নাম কী ?

উঃ টেন্টন

আরো পড়ুন

১০১] কোন পদকর্তাকে ‘পন্ডিতাচার্য’ বলা হয় ?

উঃ কাহ্ন পা

১০২] চর্যাপদের ফটো মূদ্রণ সংস্করণ কে প্রকাশ করেন ?

উঃ ড. নীলরতন সেন ১৯৭৮ সালে

১০৩] ড. অসিতকুমার বন্দোপাধ্যায়ের মতে জয়দেবের ‘গীতগোবিন্দ’ কোন শ্রেণির কাব্য ?

উঃ আখ্যানকাব্য

১০৪] গোবর্ধন আচার্য রচিত কাব্যের নাম কী ?

উঃ আর্যাসপ্তসতী

১০৫] চর্যার একজন মুসলিম গবেষকের নাম কী ?

উঃ মহঃ শহীদুল্লাহ

১০৬] চর্যার একজন হিন্দি গবেষকের নাম কী ?

উঃ রাহুল সাংকৃত্যায়ন

১০৭] চর্যাপদের ভাষা আলো আঁধারী কে বলেছেন ?

উঃ হরপ্রসাদ শাস্ত্রী

১০৮] ODBL প্রথম কোথা থেকে প্রকাশিত হয় ?

উঃ লন্ডন থেকে

১০৯] ‘নবচর্যাপদ’ কে সম্পাদনা করেন ?

উঃ অমিতকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়

১১০] জয়দেবের গীতগোবিন্দ কাব্যে মোট কতগুলি গান আছে ?

উঃ ২৪

১১১] চর্যাপদের কবিতা গুলি কোন ছন্দে লেখা ?

উঃ পাদাকুলক

১১২] চর্যার সাধনতত্ত্বে নাভি ও হৃদয় অবস্থিত চক্রের নাম কি ?

উঃ নাভি নির্মাণ চক্র ও হৃদয় ধর্ম চক্র

১১৩] শীলচারী, কীর্তিচন্দ্র, মুনিদত্ত এরা আমাদের কাছে স্মরণীয় কেন ?

উঃ মূল চর্যাপদের তিব্বতীতে অনুবাদ করেন শীলচারী। অন্যদিকে শীলচারীর চর্যা ও মূল চর্যাকে সামনে রেখে মুনিদত্ত সংস্কৃততে ৫০টি টিকা রচনা করেন। সেই টিকাকে তিব্বতীতে অনুবাদ করেন কীর্তিচন্দ্র। হরপ্রসাদ শাস্ত্রী মহাশয় নেপালে গিয়ে মুনিদত্তের টিকা ও মূল চর্যাকে নিয়ে আসেন। টিকাকে অবলম্বন করে মূল চর্যাপদের সম্পাদনা করেন ১৯১৬ সালে। এখানে মনে রাখার বিষয়টি হল শীলচারী ও মুনিদত্ত বন্ধুভাবাপন্ন ব্যক্তি যারা নেপাল রাজ দরবারে থাকতেন।

১১৪] চর্যাগীতি কোন কালিতে লেখা হয় ?

উঃ উজ্জ্বল কালো

১১৫] চর্যাপদের প্রথম পদটি কোন রাগে গীত হয়েছে ?

উঃ পটমঞ্জরী

১১৬] কম্বলাম্বর রচিত একটি বইয়ের নাম বলুন।

উঃ অভিসময়নাম্পঞ্জিকা

১১৭] কৃষ্ণের নাম প্রথম কোথায় পাওয়া যায় ?

উঃ ঋকবেদে

১১৮] ডঃ মুহম্মদ শহীদুল্লাহ এর মতে প্রাচীন চার্যাকার কে ?

উঃ শবর পা

১১৯] চর্যাপদ কোন ভাষার প্রাচীনতম দৃষ্টান্ত ?

উঃ বাংলা ভাষার

১২০] যে চর্যাকার নিজেকে রাজপুত্র এবং বাঙালী বলে ঘোষণা করেন ?

উঃ ভুসুকু পা

১২১] চর্যাপদে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদকর্তার নাম কি ?

উঃ ভুসুক পা

১২২] সুনীতিকুমারের পূর্বে কে চর্যার ভাষাকে প্রাচীন বংলা বলেছেন ?

উঃ জেকবি সাহেব

১২৩] চর্যার টীকার তিব্বতি অনুবাদ কে আবিষ্কার করেন ?

উঃ প্রবোধচন্দ্র বাগচী

১২৪] চর্যাপদকে মৈথিলী ভাষার আদি নিদর্শন কে বলেছেন ?

উঃ জয়ন্ত মিশ্র

১২৫] ‘সন্ধ্যা’ ও ‘সন্ধা’ শব্দ দুটির অর্থ কি?

উঃ সন্ধ্যা- যা ধ্যান করে পাওয়া যায়।  সন্ধা – যা অনুসন্ধান করে পাওয়া যায়।

আরো পড়ুন

১২৬] চর্যাপদের আখ্যাপত্রে নামটি কীভাবে লেখা ছিল ?

উঃ হাজার বছরের বৌদ্ধগান ও দোঁহা

১২৭] কবীন্দ্রসমুচ্চয়ের প্রকৃত নাম কী ?

উঃ সুভাষিতরত্নকোষ

১২৮] ‘অপণা মাংসেঁ হরিণা বৈরী’ – কার লেখা ?

উঃ ভুসুক পাদ

১২৯] চর্যাপদকে কেন্দ্র করে একটি ছোটগল্পের নাম ও রচয়িতার নাম লেখ।

উঃ চর্যাপদের হরিণী – দীপেন্দ্রনাথ বন্দোপাধ্যায়

১৩০] চর্যাপদের রচনাকাল কত ?

উঃ সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়এর মতে দশম থেকে দ্বাদশ শতাব্দী

১৩১] চর্যার কোন কবি পেশায় তাঁতি ছিলেন ?

উঃ ঢেণ্ঢণ পা

১৩২] রাহুল সাংকৃত্যায়ন তার কোন গ্রন্থে চর্যাপদকে হিন্দির সামগ্রী বলে গ্রহণ করেছেন ?

উঃ ‘হিন্দি কাব্যধারা’

১৩৩] সুভাষিত রত্নকোষ এর সম্পাদক কে ?

উঃ এফ ড . টমাস সম্পাদনা করে ১৯১২ সালে প্রকাশ করেন।

১৩৪] চর্যাপদের পুঁথির কটি পাতা পাওয়া গেছে ?

উঃ ৬৪ টি পাতা

১৩৫] “নগর বাহিরি ডোম্বি তোহোর কুড়িআ” – পদটি কার লেখা ?

উঃ কাহ্ন পা

১৩৬] চর্যাপদে কটি করে অর্থ আছে ও কী কী ?

উঃ ২টি। যথা–একটি লৌকিক অর্থ। অন্যটি আধ্যাত্মিক অর্থ।

১৩৭] তিব্বতি টীকায় একে ‘পঞ্চকর্মেন্দ্রিয়’ বলা হয়েছে। এই ‘পঞ্চকর্মেন্দ্রিয়’ কী ?

উঃ চর্যাপদে একটি পদ রয়েছে – ‘কা আ তরুবর পঞ্চবি ডাল’। চর্যাগীতির এই পঞ্চবি ডাল হল ‘পঞ্চস্কন্ধ’ অর্থাৎ রুপ, বেদনা, সংজ্ঞা, সংস্কার ও বিজ্ঞান। তিব্বতি টীকায় যাকে বলা হয়েছে ‘পঞ্চকর্মেন্দ্রিয়’।

১৩৮] চর্যার মূল ধর্মতত্ত্বটি কি ?

উত্তর – মহাসুখ রূপ নির্বাণলাভ

১৩৯] ‘আজি ভুসুকু তুই বঙ্গালি ভইলি’- ভুসুকুর বাঙ্গালি হবার নির্দিষ্ট কারণটি কি ?

উঃ  কারণ ভুসুকু একজন বাঙালি নারীকে বিবাহ করেছিলেন৷

১৪০] ভুসুক পার প্রকৃত নাম কী ?

উঃ শান্তি দেব

১৪১] কুক্করী পা এর পদাবলী সংখ্যা ?

উঃ ৩

১৪২] ‘ভবণই গহন গম্ভীর বেগে বাহী’ – পদটির রচয়িতা ?

উঃ চাটিল পা

১৪৩] “তুলা ধুনি ধুনি আয়ু রে আয়ু’ কার লেখা ?

উঃ শান্তি পা

১৪৪] ‘নাচন্তি বাজিল গান্তি দেবী’ –  পদটির রচয়িতা কে ?

উঃ বীণা পা

১৪৫] চর্যার দুটি সামাজিক বৈশিষ্ট্য বলুন।

উঃ বর্ণাশ্রমপ্রথা ও অন্ত্যজ শ্রেণীর মানুষের জীবনচিত্র

১৪৬] মেঘলা টিকা কে রচনা করেন ?

উঃ আচার্য পা

১৪৭] “মুক্তক সৃষ্টির গৌরব রবীন্দ্রনাথের নয়, চর্যাকবিরই প্রাপ্য।” এই মন্তব্যটি কে করেছিলেন ?

উঃ তারাপদ ভট্টাচার্য

১৪৮] কালবিবেক কার রচনা ?

উঃ জীমূতবাহন

১৪৯] “বেগ সংসার বডহিল জাঅ”- কার রচনা ?

উঃ ঢেণ্ঢণ পা

১৫০] মহম্মদ শহীদুল্লাহ – এর মতে বাংলা ভাষার আরম্ভ কাল কত ?

উঃ ৬৫০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে

SSC CLASS – by Target Bangla, Thanks to all of the participants

2 Comments

Leave a Reply