ধর্মমঙ্গল কাব্য – দ্বিতীয় পর্ব

ধর্মমঙ্গল কাব্য  নিয়ে টার্গেট বাংলা ফেসবুক গ্রুপে যে গ্রুপ ডিসকাশন হয়েছিল তা থেকে উঠে আসা নানা প্রশ্নোত্তর নিয়ে আমাদের এই আলোচনা। আজ  দ্বিতীয় পর্ব। আশা করি, সকলের উপকারে লাগবে এই পোষ্ট।

প্রশ্নোত্তর পর্ব

৫১] ঘনরাম চক্রবর্তীর লেখা কতগুলি বৈষ্ণবপদ কোথায় সঙ্কলিত হয়েছে ?

উঃ ঘনরাম চক্রবর্তীর লেখা ১৫টি বৈষ্ণবপদ ‘পদকল্পতরু’তে সঙ্কলিত হয়েছে।

৫২] ধর্মমঙ্গল কাব্য রচনার প্রধান উদ্দেশ্য কী ছিল ?

উঃ এই কাব্য রচনার প্রধান উদ্দেশ্য দক্ষিণ-পশ্চিম বাংলার লৌকিক অনার্য দেবতা ধর্মঠাকুরের মাহাত্ম্য প্রচার।

৫৩] “চণ্ডীমঙ্গল কাব্যের ঐশ্বর্য যুগের সর্বশ্রেষ্ঠ কবি যেমন মুকুন্দরাম, ঘনরামও তেমনি ধর্মমঙ্গল কাব্যের ঐশ্বর্যযুগের শ্রেষ্ঠ কবি।” – মন্তব্যটি কার ?

উঃ আশুতোষ ভট্টাচার্য

৫৪] রামদাস আদক জাতিতে কি ছিলেন ?

উঃ কৈবর্ত

৫৫] ধর্মমঙ্গল কাব্যে কোন্ যুগের ইতিহাস বর্ণিত ?

উঃ পাল যুগের

৫৬] ঘনরামের কাব্যের ত্রুটি কোথায় ?

উঃ  অলৌকিক অবাস্তব ঘটনা । শাস্ত্র নির্ভরতা

৫৭] লাউসেনকে Semi mithycal hero কে বলেছেন ?

উঃ ও ‘ম্যালি সাহেব ।

৫৮] “ঘনরামের কাব্যের প্রধান গুণ স্বচ্ছন্দতা ও গ্রাম্যতাহীনতা” কোন্ সমালোচকের অভিমত ?

উঃ সুকুমার সেন

৫৯] মহামদ কোন রোগে আক্রান্ত হয় ?

উঃ কুষ্ঠ

৬০] অষ্টাদশ শতাব্দীর কজন  ধর্মমঙ্গল অপ্রধান কবির নাম বল ?

উঃ গোবিন্দরাম বন্দ্যোপাধ্যায়, রামাকান্ত, রামনারায়ণ, নরসিংহ বসু

৬১] সংস্কৃত ভাষার কাব্য ‘সূর্যশতক’ কে রচনা করেন ?

উঃ ময়ূরভট্ট

৬২] ‘ধর্মমঙ্গল’ এ কোন নদীর কথা আছে ?

উঃ অজয়

৬৩] যদুনাথ পন্ডিতের কাব্য কে কোথা থেকে উদ্ধার করেন ? আর কি নাম দিয়ে কোথা থেকে প্রকাশ  করেন ?

উঃ ড. পঞ্চানন মন্ডল, এক তাঁতির বাড়ি থেকে, ‘ধর্মপুরাণ’ নামে বিশ্বভারতী থেকে প্রকাশিত হয়।

৬৪] ময়ূরভট্টে বন্দিব আদ্যকবি – কে লিখেছেন ?

উঃ ঘনরাম চক্রবর্তী

৬৫] কর্ণসেনের সাথে লাউসেনের সম্পর্ক কি ?

উঃ পিতা ও পুত্র

৬৬] ধর্মঠাকুরের পূজার উপকরণ কী ?

উঃ মদের পুস্কার্ণ দিল পিটারে জাঙ্গাল

৬৭] রাজা হরিশ্চন্দ্রের স্ত্রীর নাম কী ?

উঃ মদনা

৬৮] ধর্মঠাকুরকে কে ‘প্রাগার্য সূর্য দেবতা’ বলেছেন

উঃ আশুতোষ ভট্টাচার্য

৬৯] ময়ূরভট্ট রচিত ‘শ্রীধর্মপুরাণ’ কার সম্পাদনায় কোথা থেকে প্রকাশিত হয়?

উঃ বসন্তকুমার চট্টোপাধ্যায়ের সম্পাদনায় বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদ থেকে

৭০] ধর্মঠাকুরকে কে প্রথম ‘বৌদ্ধ দেবতা’ বলেছেন

উঃ হরপ্রসাদ শাস্ত্রী

৭১] এই কাব্যের মধ্যে কোন কবির পুঁথি প্রাচীন ?

উঃ প্রাপ্ত পুথির মধ্যে রূপরাম চক্রবর্তীর পুঁথি প্রাচীন।

৭২] ধর্মমঙ্গলের প্রথম পর্বের গ্রন্থগুলিতে পাঁচ জন ধর্মদ্বারপালের নাম পাওয়া যায়, এঁদের নাম কী কী ?

উঃ সেতাই পন্ডিত, নীলাই পন্ডিত, কংসাই পন্ডিত, রামাই পন্ডিত ও গোঁসাই পন্ডিত

৭৩] ধর্মমঙ্গল কাব্যের প্রধান চরিত্রগুলোর নাম কী কী ?

উঃ এ কাব্যের মূল চরিত্রগুলো হলো – হরিশ্চন্দ্র, মদনা, লুইচন্দ্র, কর্ণসেন, গৌড়েশ্বর, লাউসেন।

৭৪] নরসিংহ বসুর কাব্যের উপর কাজ করে কে কী ডিগ্রী পান ?

উঃ সুকুমার মাইতি

৭৫] ঘনরাম তাঁর কাব্য সূচনায় কোন কোন দেব-দেবীর বন্দনা করেছেন ?

উঃ গণেশ, সরস্বতী, ধর্মদেবতার।

আরো পড়ুন

৭৬] ঘনরাম তাঁর কাব্যের নাম ‘অনাদিমঙ্গল’ ছাড়া আর কি নাম ব্যবহার করেছেন ?

উঃ ‘শ্রীধর্মসঙ্গীত’, ‘মধুরভারতী’

৭৭] ঘনরাম তাঁর কাব্য সূচনায় কোন কোন দেব-দেবীর বন্দনা করেছেন ?

উঃ আখড়া পালায়

৭৮] শ্যাম পন্ডিতের রচনার নাম কি ? তিনি কাদের পুরহিত ছিলেন ?

উঃ নিরঞ্জনমঙ্গল। ডোম

৭৯] বিশ্বভারতী থেকে কে কি নামে ধর্মসংক্রান্ত পুঁথি প্রকাশ করেন?

উঃ পঞ্চানন মন্ডল। অনাদ্যের পুঁথি

৮০] রামাই পন্ডিত এর শূণ্যপূরাণ কে আবিস্কার করেন ? নিরঞ্জনের উষ্মা কী ? ময়ূর ভট্টের শ্রীধর্মপুরাণ কে জাল বলে প্রমাণ করেন ?

উঃ নগেন্দ্রনাথ বসু। কতকগুলি অদ্ভুত ছড়া। যোগেশচন্দ্র রায় বিদ্যানিধি।

৮১] “অনিলপুরাণ” নামে ধর্মমঙ্গলকাব্য কে রচনা করেন ?

উঃ সহদেব চক্রবর্তী

৮২] ধর্মমঙ্গল কাব্যের নায়ক কে ?

উঃ লাউসন

৮৩] ঘনরাম চক্রবর্তী রচিত অনাদিমঙ্গলের রচনাকাল জ্ঞাপক শ্লোকটির কি ?

উঃ শক লিখে রাম গুন রস সুধাকর

৮৪] ধর্মমঙ্গল কাব্যের পূর্ণাঙ্গ পুঁথি কে রচনা করেন ?

উঃ রূপরাম চক্রবর্তী

৮৫] ময়ূরভট্ট ধর্মমঙ্গল ছাড়া আর কোন গ্রন্থ রচনা করেন ?

উঃ সূর্যশতক

৮৬] ধর্মমঙ্গল কে কোন অঞ্চলের কাব্য বলা হয় ?

উঃ রাঢ়

৮৭] ধর্ম ঠাকুর কোন অঞ্চলে মোহন রায় নামে পরিচিত ?

উঃ বরুন গ্রাম

৮৮] ধর্মমঙ্গল কাব্য কোন শ্রেণীর মুসলমান সম্প্রদায়ের মধ্যে বিশেষ জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল

উঃ মুসলমান কৃষিজীবী সম্প্রদায়

৮৯] সীতারাম কোন দেবতার দ্বারা আদিষ্ট হয়ে কাব্য রচনা করেন?

উঃ গজলক্ষী

৯০] ঘনরাম চক্রবর্তীর কাব্যের ছন্দ কি ?

উঃ মিশ্রকলাবৃও

৯১] ধর্ম ঠাকুরের পূজারীদের উপাধি কী ?

উঃ পণ্ডিত

৯২] লাউসেনের কাহিনীতে মহিলা কবি কে ছিলেন ?

উঃ কলিঙ্গা ও কানাড়া

৯৩] লাউসেনের প্রথম স্ত্রীর নাম কী ?

উঃ কানাড়া

৯৪] ঘনরাম চক্রবর্তীর ‘অনাদিমঙ্গল’ কাব্যের আর কী কী নাম পাওয়া যায়?

উঃ মধুরভারতী, শ্রীধরমসঙীত, অনাদিমঙ্গল

৯৫] ‘তিন বনে চারি যুগে বেদে যত রয় /শাকে সনে জড় হৈলে কত শক হয় / রসের উপরে রস তাহে রস দেহ / এই শকে গীত হৈল লেখা কইরা লেহ’―কার গ্রন্থ রচনাকাল সম্পর্কিত শ্লোক ?

উঃ রূপরাম চক্রবর্তী

৯৬] ধর্মঠাকুরের পূজা কোথায় প্রচলিত ছিল ?

উঃ সাধারণত, ডোম-সমাজেই এই দেবতার পূজা প্রচলিত ছিল, এখনো আছে। ধর্মঠাকুর নিরঞ্জন নিরাকার আদ্য দেবতা। ধর্মঠাকুরের উদ্ভবের মূলে কেউ বৌদ্ধ ধর্মের ত্রিরতের, কেউ বা বৈদিক সূর্যদেবতার, কেউ বা আর্যের প্রভাব অনুসন্ধান করেন।

৯৭] ধর্মমঙ্গল কাব্যের দুটি ঐতিহাসিক চরিত্রের নাম লেখ ?

উঃ ধর্মপাল ও ইছাই ঘোষ।

৯৮] ঘনরাম চক্রবর্তী কার কাছ থেকে কবিরত্ন উপাধি পান ?

উঃ কবিগুরু শ্রীরাম দাসের কাছ থেকে।

৯৯] দলু রায় কোন অঞ্চলের নাম ?

উঃ শ্যামবাজার

১০০) লাউসেনের স্বর্গীয় পরিচয় কী ?

উঃ কশ্যম মুনির পুত্র

১০১) ধর্মমঙ্গল কাব্যে কোন কবি নিজের আত্মপরিচয় সম্পর্কে ছিলেন উদাসীন ?

উঃ ঘনরাম

১০২] ‘ধর্ম’ শব্দটি মিসরীয় ভাষার কোন শব্দজাত ?

উঃ দো- আহোম-রা নামক শব্দ

১০৩] “বাঙ্গালা সাহিত্যের ইতিহাস” এ ন্যূনাধিক কতজন ধর্মমঙ্গল কবির নাম পাওয়া যায় ?

উঃ ২৪

১০৪] “ধর্মমঙ্গল” কাব্যকে ‘রাঢ়ের জাতীয় কাব্য’ বা ‘রাঢ়ের মহাকাব্য’ কে বলেছেন?

উঃ ড: সুনীতি কুমার চট্টোপাধ্যায়

১০৫] ঘনরামের কজন পুত্র ?  নাম কি কি ?

উঃ চার। রামরাম, রামকৃষ্ণ, রামগোপাল, রামগোবিন্দ।

অংশগ্রহণকারী সকলকে জানাই ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 6 =